ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম

ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম 100% সঠিক ভাবে।

আমরা সবাই হয়ত ফেসবুক ব্যবহার করে থাকি কিন্ত সঠিক ভাবে অনেকে ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম অনেকেই জানিনা। তাদের জন্যই আমি এই আর্টিকেলের মাধ্যমে দেখাবো কি করে সঠিক নিয়মে ফেসবুক পেজ খুলতে হয় তা।

যখন ২০০৪ সালে, মার্ক জুকারবার্গ প্রথম ফেসবুক তৈরি করেছিল তখন থেকে ফেসবুক আমাদের কাছে একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে পরিচিতি পায়। সেই ফেসবুক এর জনপ্রিয়তা এতই বৃদ্ধি পাই যে তা ছিল কল্পনাতীত। আগের সেই ফেসবুক যোগাযোগ মাধ্যমে সীমাবদ্ধ নয়, এটি অনলাইনে ইনকাম করা ও বিজনেস করারও একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হয়ে উঠেছে। একটি Facebook page খোলার মাধ্যমে আপনিও আয় শুরু করতে পারেন খুব সহজে।

কিন্ত আমাদের অনেকেই আছি যারা ফেসবুক ব্যবহার করি অথচ ফেসবুক কিভাবে খুলতে হয় তা এখনো জানিনা। কারণ, আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যাদের কাছে মনে হয় একটি ফেসবুক পেজ খোলা অনেক কঠিন। কিন্ত আমরা যা ভাবছি তা মোটেও সঠিক নয়।

যাদের কাছে কঠিন মনে হয় তাদের জন্য আমি আজকের এই আর্টিকেলে দেখাবো ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম। আপনি পুরো আর্টিকেলটি পড়লে আপনার কাছে সবকিছু পানির মত সহজ হয়ে যাবে।

আপনি পেজ খোলে, নানানভাবে ইনকাম করা শুরু করতে পারেন। তার মধ্যে, ফেসবুক ভিডিও, ফেসবুক ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল, ফেসবুক বিজনেস করে আপনি মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করা শুরু করে দিতে পারেন।

আপনি যদি সঠিক নিয়মে একটি ফেসবুক পেজ খুলতে চান, তাহলে পুরো আর্টিকেলটি পড়বেন। এতে করে আপনি নির্ভূলভাবে জানতে পারবে একটি ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম।

কারণ, ফেসবুক পেজ খোলা অনেক সহজ তবে facebook page খোলার অনেক নিয়ম রয়েছে সেগুলো মাথায় রেখে facebook page না খুললে আপনি পরে গিয়ে অনেক সমস্যায় পড়তে পারেন। তাই, আমি এই আর্টিকেলে কিভাবে সঠিক নিয়মে একটি ফেসবুক পেজ খুলবেন তা দেখিয়েছি।

কেন আপনার একটি ফেসবকু পেজ খোলা উচিত?

ফেসবুক একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বিশ্বে অনেক বেশি জনপ্রিয় ও সমাদৃত। বিশ্বের প্রায় ২৯১ কোটি মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করছে। মানুষ এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি ব্যবহার করে যেমন একের অপরের সাথে যোগাযোগ করছে তেমনি এখানে ব্যবসা পরিচালনা করছে, কেনাকাটা করছে, ফেসবুক ব্যবহার করে নানান উপায়ে অর্থ উপার্জন করতেছে। দিন দিন ফেসবুকের জনপ্রিয়তা ও ব্যবহারকারী দুটোই সমানহারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই সংগত অনেক কারণে আপনার একটি ফেসবুক খোলা দরকার বলে আমি মনে করি।

কারণগুলো আমরা একনজরে দেখে নিই:

  • আমরা জানি, ফেসবুকে ০৫ হাজারের বেশি ফেসবুক বন্ধু বানানো যায় না। কিন্ত আপনি যদি চান, তবে ০৫ হাজারের বেশি ফেসবুক বন্ধু বানাতে পারবেন। এজন্য আপনাকে একটি ফেসবুক পেজ খুলতে হবে।
  • আপনি যদি একজন পাবলিক ফিগার ( Celebrity) হোন, তাহলে আপনি একটি facebook page খুলতে পারেন। এতে করে, আপনার অনুসারীরা আপনার পেজে লাইক দিয়ে আপনার সাথে যুক্ত থাকতে পারবে। আপনি একটি ফেসবুক পেজের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ অনুসারীদের সাথে একসাথে যুক্ত থাকতে পারবেন।
  • আপনি যদি একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব কিংবা সাংবাদিক অথবা অন্য কোন জনপ্রিয় ব্যক্তি হয়ে থাকেন, তাহলে আপনি একটি ফেসবুক পেজ খুলে লক্ষ লক্ষ ভক্তের সাথে যুক্ত হতে পারেন।
  • আপনি যদি অনলাইন ব্যবসা করার জন্য ফ্রি, সহজ ও জনপ্রিয় প্ল্যার্টফর্ম খুজে থাকেন তাহলে আপনার জন্য ফেসবুকের কোন বিকল্প নেই। একটি ফেসবুক পেজ খোলে এখনি লক্ষ লক্ষ গ্রাহকদের নিকট পৌছাতে পারবেন খুব সহজে।
  • আপনি যদি একজন অফলাইন ব্যবসায়ী হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার ব্যবসায়ের প্রসার ও প্রচার করার একটি ফেসবুক পেজ খুলতে পারবেন।
  • তাছাড়া আপনি যদি চান, একটি ফেসবুক পেজ খোলে ভিডিও এবং লেখালেখি করে আয় করতে পারবেন খুব সহজে।

আপনি যে হোন না কেন কিংবা যে পেশায় যুক্ত থাকেন না কেন, আপনার জন্য একটি ফেসবুক পেজ দরকার আছে বলে মনে করি। তার কারণগুলো উপরে আমি বলেছি, আপনি তা পর্যালোচনা করে দেখতে পারেন।

সঠিক ভাবে ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম

ফেসবুক পেজ খোলার প্রথম ও অন্যতম শর্ত হলো আপনার নিজের একটি Facebook acoount থাকতে হবে। বর্তমানে কমবেশি সবার কাছে এখন অন্তত একটি ফেসবকু একাউন্ট হলেও অবশ্যই আছে। কোনভাবে, আপনার নিজের যদি একটি ফেসবুক একাউন্ট না থাকে, তাহলে অবশ্যই একটি Facebook account তৈরি করে নিবেন।

আমাদের সবার যেহেতু কম বেশিরই ফেসবুক একাউন্ট আছে, সেই হিসেবে আপনারও একটি Facebook account ‍আছে মনে করে, আমি আপনাকে ফেসবকু পেজ খোলার নিয়ম সমূহ দেখিয়ে দিব।

১. ফেসবুক পেজ তৈরি করুন।

আমি আপনাকে এখন দেখাবো খুব সহজে আপনি ল্যাপটপ/ডেস্কটপে একটি ফেসবুক পেজ খুলবেন। Facebook page create করার জন্য আপনাকে সর্ব প্রথমে আপনার ল্যাপটপ/ডেস্কটপে যেকোন একটি ব্রাউজার ওপেন করে আপনার ফেসবুক একাউন্টে লগইন করতে হবে। এরপর আপনি ফেসবুকের হোমপেজে আসবেন।

ফেসবুকের হোমপেজে আসার পর ৯ ডটের Menu’তে ক্লিক করুন।

ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম

এরপর একটু নিচে Page অপশনে ক্লিক করুন। ক্লিক করার পরে আপনাকে পরের পাতায় নিয়ে যাওয়া হবে।

facebook page interface

২. আপনার পেজের তথ্য দিন।

এই পেজে আপনার ফেসবুক পেজটি সম্পর্কে তথ্য প্রদান করতে হবে। এসব তথ্য প্রদান করলে আপনি একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে পারবেন। অন্যথায়, আপনি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে পারবেন না।

Page Information

আপনাকে এই পেজে যেসব তথ্য প্রদান করতে হবে তা হল:

  • আপনার ফেসবুক পেজের নাম কি হবে তা ( আপনার পছন্দ অনুযায়ী দিতে পারবেন)
  • পেজের ক্যাটাগির কি হবে তা দিতে হবে।
  • আপনার ফেসবুক পেজ সম্পর্কে বর্ণনা প্রদান করতে হবে।

এসব তথ্য প্রদান করা হয়ে গেলে আপনি এখন Create Page এ ক্লিক করে Save করুন।

Create page

এখন আপনি একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে পেরেছেন! আমি আপনাকে আগেই বলেছি সঠিক ভাবে ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম দেখাবো এই আর্টিকেলে। আপনি শুধুমাত্র এখন ফেসবুক পেজ তৈরি করতে পেরেছেন তবে সঠিকভাবে নয়। ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম সঠিক হওয়ার জন্য আপনাকে আরো কিছু পদক্ষেপ নিতে হবে, তাহলেই আপনি সঠিকভাবে একটি ফেসবুক পেজ খুলতে পারবেন। তাহলেই ফেসবুক পেজ খোলার বাকি নিয়ম সমূহ দেখা যাক।

৩. প্রোফাইল ছবি যুক্ত করুন।

আপনার ফেসবুক পেজটি দেখে যাতে কেউ চিনতে পারে এবং পেজের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধির জন্য একটি প্রোফাইল পিকচার যুক্ত করুন। প্রোফাইল পিকচারটি আপনার ছবি, আপনার ব্যবসায়ের লোগো কিংবা আপনাকে বা আপনার ব্যবসায়কে প্রকাশ করে এমন একটি ছবি যুক্ত করুন। যে ছবিটি আপনার নিজের মালিকানাধীন ছবি হলে আরো ভাল হয়। আপনার আপলোড করা ছবির সাইজ সর্বোচ্চ ৭২০x৭২০ পিক্সেলের হতে হবে।

এটি নিশ্চয়ই একটি ফেসবুকের দারুণ ব্যবস্থাপনা ও মজার বিষয়। একটি প্রোফাইল ছবি আপনাকে আপনার অনুসারীদেরকে দারুণভাবে উপস্থাপন করে।

৪. কভার ফটো যুক্ত করুন।

আপনার প্রোফাইল ছবি যুক্ত করার পর, এখন আপনার ফেসবুক পেজে আপনাকে কভার ফটো আপলোড করতে হবে। প্রোফাইলের উপরে যে ফটোটি আপলোড করতে হবে ঐটাই কভার ফটো। যেমনটা আমরা আমাদের ফেসবুক একাউন্টে কভার ফটো যুক্ত করি।

সেই কভার ফটোটি আপনি একজন ভাল ডিজাইনার হায়ার করে বা নিজে ডিজাইন করে আপলোড দিতে পারলে আরো বেশি প্রফেশনাল দেখাবে আপনার পেজ। কভার ফটোতে আপনার অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টগুলির ইউজারনেমগুলো শেয়ার করার মাধ্যমে ব্যবসায় বা নিজের সম্পর্কে একটু প্রচার করাও হল।

৫. ইউজারনেম যুক্ত করুন।

এখন আপনার ফেসবুক পেজের জন্য আপনাকে একটি ইউজারনেম তৈরি করতে (ভ্যানিটি ইউআরএল) হবে। কারণ, এটি মূলত আপনার পরিচিতি। এটির দ্বারা আপনাকে খুজে বের করবে অনুসারী কিংবা গ্রাহকরা। ইউজারনেমটি আপনার ব্যবসায়ের সাথে যায় এমন প্রাসঙ্গিক হওয়া উচিত। তাছাড়া গ্রাহক কিংবা অনুসারীদের মনে রাখতে সহজ ও ব্যবহারযোগ্য এমন একটি ইউজারনেম তৈরি উচিত ।

ইউজারনেম তৈরি করার জন্য আপনার পেজের হোম পেজে থাকা প্রোফাইল এর পাশে থাকা Create @Username এ ক্লিক করতে হবে।

তারপর নিচের এই ইন্টারফেসটি আসবে। এখানে Username অপশনে আপনার ফেসবুকের জন্য বাছাই করা বা ইউনিক ইউজারনেমটি দিতে হবে।

আপনার দেওয়া ইউজারনেমটি যদি ইউনিক হয় তবে, আমার দেওয়া ইউজারনেমটির পাশে সবুজ টিক চিহ্নটির মতো চিহ্ন আসবে। যদি আসে তাহলে আপনি Create username এ ক্লিক করে আপনার ইউজারনেম তৈরি করতে পারবেন।

আপনার ইউজারনেমটি তৈরি হয়ে গেলে আপনার এরকম একটি উইন্ডো দেখাবে যেখানে লিখা থাকবে You’re all set! তারপর Done এ ক্লিক করে আপনার পেজের হোমপেজে চলে আসুন।

৬. বাটন যুক্ত করুন।

আপনার অনুসারী কিংবা গ্রাহকরা যখন আপনার পেজে আসে তখন আপনি তাদের কাছ থেকে কোন ধরণে প্রতিক্রিয়া চান তা আপনার পেজে বাটন যুক্ত করার মাধ্যমে করতে পারবেন।

এই বাটন যুক্ত করার ফলে আপনার অনুসারী কিংবা গ্রাহকরা কল, মেসেজ, আপনার অ্যাপ ডাউনলোড কিংবা আপনার ওয়েবসাইটে গিয়ে শপিং সহ আরো নানা ধরণের পদক্ষেপ নিতে পারে। তারা কোন পদক্ষেপ নিবে তা আপনার যুক্ত করা বাটনের ওপর নির্ভর করবে।

আপনার পেজের হোমপেজ থেকে Add a button এ ক্লিক করে বাটন যুক্ত করতে পারবেন। বাটন যুক্ত করার জন্য Add a button এর ক্লিক করুন।

add a button

ক্লিক করা পরে নিচের উইন্ডোটি আসবে। উইন্ডোটিতে বিভিন্ন ধরণের বাটন আসবে। সেখান থেকে আপনার জন্য প্রয়োজনীয় বাটনটি নির্বাচন করে দিবেন। সিলেক্ট করলেই আপনার পেজের বাটন হিসেবে যুক্ত হয়ে যাবে।

আপনি পেজে যে ধরণের বাটনগুলো যুক্ত করতে পারবেন:

  • Follow
  • View gift card
  • Start order
  • Book now
  • Call now
  • Contact us
  • Send message
  • Send Whatsapp message
  • Send Email
  • Learn more
  • Sign up
  • Use app
  • Playgame
  • Watch Video
  • Shop on website

৭. যোগাযোগের ঠিকানা যোগ করুন।

আপনি ফেসবুক পেজের মাধ্যমে আপনার ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য পেজে আপনাকে যোগাযোগের ঠিকানা যোগ করতে হবে। যোগাযোগের ঠিকানা আপনার বিশ্বস্থতা গড়ে তুলে। এছাড়া আপনি যোগাযোগের জন্য আপনার ফোন নং ব্যবহার করতে পারবেন এবং হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন। এতে করে আপনার সাথে আপনার গ্রাহকরা সহজেই যোগাযোগ রক্ষা করতে পারে।

কিভাবে যোগাযোগের ঠিকানা যোগ করবেন তা দেখে নিই:

প্রথমে আপনার ফেসবুক পেজের হোমপেজ থেকে Settings এ ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনাকে পরের পেজে নিয়ে যাওয়া হবে।

Settings

পরের পেজ থেকে Page info তে ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনাকে আবারো পরের পেজে নিয়ে যাওয়া হবে।

এই পেজে আপনাকে যোগাযোগের সকল তথ্য দিতে হবে, তবে বাধ্যতামূলক নয়। যোগাযোগের ঠিকানা দেয়াটাই আপনার জন্য ভাল, এতে পেজের বিশ্বস্থতা বাড়ে।

Contact Informatiom Provide here

এই পেজে আপনি যে ধরণের তথ্য প্রদান করতে পারবেন:

  • মোবাইল নং
  • হোয়াটসঅ্যাপ নং
  • ই-মেইল
  • ওয়েবসাইট
  • লোকেশন
  • ম্যাপ লোকেশন
  • সেবা এলাকা
  • ব্যবসা প্রতিষ্টান খোলা থাকে।
  • প্রাইস
  • কারেন্সিসহ ইত্যাদি।

৮. টেমপ্লেট যুক্ত করুন।

ফেসবুক পেজের জন্য ফেসবুক এর নিজস্ব কিছু থিম বা টেমপ্লেট রয়েছে। এগুলো ব্যবহার করে আপনি বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা পাবেন। এসব টেমপ্লেট এ ভিন্ন পেশার মানুষের জন্য ভিন্ন ভিন্ন সুবিধার ট্যাবসমূহ রয়েছে। এগুলো ব্যবহার করে আপনি আপনার অনুসারী কিংবা গ্রাহকদের নিকট আরো নিজের আকর্ষণীয়ভাবে ব্যবসা বা ব্যক্তিত্ব প্রকাশ করতে পারেন।

কিভাবে ফেসবুক পেজের টেমপ্লেট যুক্ত করবেন তা দেখে নিই:

প্রথমে আপনাকে পেজের হোমপেজ থেখে Settings এ ক্লিক করতে হবে। Settings এ ক্লিক করলে আপনাকে একটি নতুন পেজে নিয়ে যাওয়া হবে।

Settings

নতুন পেজ থেকে Template and tab এ ক্লিক করতে হবে। এই Tab থেকে Edit এ ক্লিক করতে হবে। Edit এ ক্লিক করার পরে আপনার সামনে একটি নতুন উইন্ডো আসবে।

এই উইন্ডো থেকে আপনি কোন ধরণের Template বাছাই করতে চান আপনার পেজের জন্য সেটি ‍Select করুন। আমার ফেসবুক পেজটি বিজনেস পেজ তাই আমি Business template নির্বাচন করেছি। আপনি আপনার জন্য প্রয়োজনীয় ট্যাবটি বাছাই করুন।

Select template

আপনার পছন্দনীয় টেমপ্লেট নির্বাচন করার পর আরেকটি উইন্ডো আসবে আপনার সামনে। এই উইন্ডোতে দেখাবে আপনার পেজের হোমপেজটা কেমন দেখাবে তা। যদি এটা আপনার পছন্দ হয় তবে, Apply Template করে দিন।

Apply template

Apply template করে দেওয়ার পর, Current template এ Standard এর জায়গায Business দেখাবে।

৯. আপনার বন্ধুদেরকে Invite ( আমন্ত্রণ) জানান।

আপনি একটা ফেসবুকে পেজ খুলছেন তা বন্ধুদের জানিয়ে দিতে পারবেন খুব সহজে ফেসবুকের নিজস্ব ফিচার ব্যবহার করে। আপনার বন্ধুরা যদি আমন্ত্রণে সাড়া বা লাইক দেয় তাহলে আপনি তাড়াতাড়ি জনপ্রিয় হয়ে উঠবেন। কারণ, যারা লাইক দেয় তারা আপনার অনুসারী বা ভক্ত। লাইক দিয়ে তারা আপনার সাথে যুক্ত থাকে। লাইক দেওয়ার কারণে তারা আপনার যেকোন আপডেট খুব সহজে পেয়ে যায়।

চলুন দেখে নিই কিভাবে আপনি বন্ধুদের Invite ( আমন্ত্রণ) জানাবেন:

আপনাকে প্রথমে ফেসবুক পেজের হোমপেজে যেতে হবে। তারপর হোমপেজের 3 Dot Menu’তে ক্লিক করতে হবে। 3 Dot Menu থেকে Invite friends এর ক্লিক করতে হবে। Invite friends এ ক্লিক করার পরে আপনার সামনে নতুন একটি উইন্ডো ওপেন হবে।

এখান থেকে আপনি আপনার পছন্দনীয় বন্ধুদেরকে Select করে Invite পাঠাতে পারবেন খুব সহজে।

Invite friends

আপনার যদি ফেসবুক বন্ধু বেশি থাকে, অতগুলো বন্ধুকে কিভাবে ইনভাইট পাঠাবেন সেই চিন্তায় পড়ে থাকেন কিংবা আপনি যদি অলস প্রকৃতি হোন, তাহলে আপনার জন্য ট্রিক্স শেয়ার করি।

আপনি আপনার ফেসবুক পেজটি যেকোন একটি এন্ড্রয়েড ফোনে “ফেসবুক লাইট ভার্সনের” অ্যাপসে লগইন করবেন। তারপর ওখান থেকে Invite friends দিলে আপনি এক ক্লিকে আপনার সব বন্ধুদেরকে আপনার পেজের Invite পাঠাতে পারবেন।

১০. আপনার পেজে একটি শুভেচ্ছা পোষ্ট করুন।

আপনি একটি ফেসবুক খোলার পর আপনার একটি শুভেচ্ছা বার্তা পোস্ট করুন। এতে করে, আপনার ভক্তরা জানতে পারবে আপনি তাদের সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য একটি ফেসবুক পেজ খুলেছেন। তাই চটজলদি, একটি শুভেচ্ছা বার্তা পোষ্ট করুন এই মূহুর্তে।

কিভাবে বুঝবেন ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম সমূহ পূরণ হয়েছে কিনা?

আপনি একটি ফেসবুক পেজ খোলার পর সেই পেজটি আদৌ ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম সমূহ পূরণ হয়ে তা বুঝবেন কিভাবে এই প্রশ্নটি নিশ্চয়ই মাথায় ঘুরছে। এই প্রশ্নটির উত্তর খুবই সহজ। আপনি সঠিকভাবে ফেসবুক পেজ খোলেছেন কিনা তা বুঝার জন্য আপনার পেজের হোমপেজে একটি Progress Bar দেখতে পারবেন।

Progress Bar

এই Progress Bar দেখে আপনি বুঝতে পারবেন আপনি কতটুকু পেরেছেন। আপনি কি কি পূরণ করেন নাই, তাও দেখতে পাবেন। যা পূরণ করেন নাই, তা এখান থেকে দেখে পূরণ করতে পারবেন।

আপনি হয়ত লক্ষ্য করছেন, আমি এখানে ১৩টি ধাপ থেকে ১০টি ধাপ সম্পন্ন করতে পেরেছি। কারণ, আমি এখানে আপনাদের দেখানোর জন্য ডেমো পেজ খোলার কারণে Invite friends, Whatsapp Number, Create Welcome post করি নাই তাই এরকম দেখাচ্ছে। আশা করি, আপনি একটি সঠিকভাবে ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম সমূহ জেনে একটি ফেসবুক পেজ খুলতে পেরেছেন।

শেষ কথা:

আমরা আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে যারা ফেসবুক পেজ খুলতে জানিনা, তারা ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম সমূহ জেনেছি। তারপর কিভাবে একটি ফেসবুক পেজ খুলতে হয় সঠিকভাবে তা ধাপে ধাপে জানতে পেরেছি। এতদিন, আমরা যারা ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম সমূহ জানতাম না, তারা এখন থেকে একটি ফেসবুক পেজ খুলে ফেলতে পারবে অনায়াসেই।

আজকের আর্টিকেল এ যদি কোন বিষয় যদি ভুল করে এড়িয়ে যায়, তবে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আর, আপনি আজকে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে একটি ফেসবুক পেজ খুলতে পেরেছেন কিনা জানাবেন কমেন্ট করে। আপনার সামান্য উৎসাহ আমাকে অনেকবেশি অনুপ্রাণিত করে।

আপনি যদি সঠিকভাবে facebook page create করতে পারেন এই আর্টিকেল থেকে শিখে, আপনার না জানা বন্ধুদের সাথে এটি শেয়ার করতে পারেন।

এই ব্লগে আমি অনলাইনের নানা বিষয়ে আর্টিকেল লিখে থাকি। যেমন, অনলাইন আয়, ডিজিটাল মার্কেটিং, এফিলিয়েট মার্কেটিং, ওয়েব ডিজাইন, গ্রাফিক্স ডিজাইন, চাকরি. ক্যারিয়ার, ভ্রমণ-গাইড, মোবাইল সম্পর্কিত সকল বিষয়। আপনি চাইলে আমাদের সাথে নিয়মিত থাকতে পারেন।

হ্যাপি ফেসবুক পেজিং!

Ismail Md. Abunur Shakil

2 thoughts on “ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম 100% সঠিক ভাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.